BIGtheme.net http://bigtheme.net/ecommerce/opencart OpenCart Templates
Breaking News
Home / Admit Card / জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিষ্ট্রেশন কার্ড বা প্রবেশপত্র হারিয়ে গেলে করনীয় Registration Card Lost 2019

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিষ্ট্রেশন কার্ড বা প্রবেশপত্র হারিয়ে গেলে করনীয় Registration Card Lost 2019

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিষ্ট্রেশন কার্ড বা প্রবেশপত্র হারিয়ে গেলে করনীয় তা দেখে নিন। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে অনার্স, মাস্টার্স ও ডিগ্রিতে কেউ যদি Registration Card বা Admit Card হারিয়ে ফেলে তাহলে তাকে কিছু কাজ করার প্রয়োজন হয়।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিষ্ট্রেশন কার্ড বা প্রবেশপত্র হারিয়ে গেলে করনীয় Registration Card Lost 2019

কঠিন পদ্ধতি

নিকটস্থ থানায় জিডি করাঃ রেজিষ্ট্রেশন কার্ড বা প্রবেশপত্র হারিয়ে গেলে নিকটস্থ থানায় জিডি (সাধারণ ডায়েরি) করতে হবে। থানার অফিসার ইনচার্জ বরাবর একটা আবেদন করতে হবে যাতে আপনার রেজিষ্ট্রেশন নম্বর, রোল নম্বর, নাম, পিতার নাম, মাতার নাম, কলেজের নামসহ বিস্তারিত তথ্য দিয়ে আবেদনপত্রটি লিখতে হবে। পরে থানার কার্যক্রম শেষে আপনাকে জিডির একটা কপি দেয়া হবে। আপনি সেই জিডি কপি কলেজে জমা দিয়ে নতুন একটা রেজিষ্ট্রেশন কার্ড বা প্রবেশপত্রের জন্য অধ্যক্ষ স্যার বরাবর আবেদন করতে পারবেন।

বিঃদ্রঃ থানায় জিডি বা সাধারণ ডায়েরি করতে কোন ফি লাগেনা।

দৈনিক পত্রিকায় বিজ্ঞাপনঃ স্থানীয় বা জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় ”হারিয়ে গেছে” এমন শিরোনামে বিজ্ঞাপন দিতে হবে। যাতে আপনার রেজিষ্ট্রেশন নম্বর, রোল নম্বর, নাম, পিতার নাম, মাতার নাম, কলেজের নামসহ বিস্তারিত তথ্য দিতে হবে। তারপর সেই পত্রিকার ঔ অংশবিশেষ কেটে নিয়ে কলেজের আবেদন পত্রের সাথে সংযুক্ত করতে হবে।

বিঃদ্রঃ দৈনিক পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিতে ফি লাগে।

পুড়ে/ নষ্ট/ ছিড়ে গেলে

যদি কোন কারণবশত রেজিষ্ট্রেশন কার্ড বা প্রবেশপত্র পুড়ে যায়, নষ্ট হয়ে যায়, ছিড়ে যায় তখন যদি তার অংশ বিশেষ আপনার কাছে থাকে তখন থানায় জিডি ও পেপারে বিজ্ঞাপন না দিলেও চলবে।

তখন আবেদন ফরমের সাথে সেই অবশিষ্ট অংশ গুলো জমা দিলেও চলবে। রেজিষ্ট্রেশন কার্ড বা প্রবেশপত্রের অংশবিশেষে নাম, রোল নম্বর, কেন্দ্র, পাশের বিভাগ ও সন, জন্ম তারিখ ও পরীক্ষার নাম না থাকলে তা গ্রহণযোগ্য হবে না।

সহজ পদ্ধতি

আগে রেজিষ্ট্রেশন কার্ড এবং প্রবেশপত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের অফিস থেকে প্রিন্ট হয়ে আসতো। তাই এসব হারিয়ে গেলে নিজে বোর্ডে যেতে হত বা কলেজের কোন প্রতিনিধির মাধ্যমে আনাতে হত। কিন্তু এখন ডিজিটালাইজেশন হবার কারণে এখন আর এসব বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রিন্ট হয়ে আসেনা।

অনলাইনে প্রকাশ করা হয় কলেজ কর্তৃপক্ষ সেটা ডাউনলোড করে নিজেরা প্রিন্ট করে নিতে পারে যতবার খুশি। ফলে কলেজ কর্তৃপক্ষ ইচ্ছে করলে একজন শিক্ষার্থীকে থানায় জিডি করা বা দৈনিক পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দেয়ার ঝামেলা থেকে রক্ষা করতে পারে।

যখন অনলাইনে রেজিষ্ট্রেশন কার্ড এবং প্রবেশপত্র ডাউনলোড করে তখন তা কম্পিউটারে সেভ থাকে। তাই যখন প্রয়োজন হয় তখনই প্রিন্ট দিতে পারবে কলেজ কর্তৃপক্ষ।

পরামর্শঃ থানায় জিডি বা পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দেয়ার আগে কলেজের কম্পিউটার অপারেটরের সাথে যোগাযোগ করবেন উনি খুব সহজেই আরেকটা রেজিষ্ট্রেশন কার্ড এবং প্রবেশপত্র ডাউনলোড করে প্রিন্ট করে দিতে পারেন। তাই এটা নিয়ে দুশ্চিন্তা করার কোন প্রয়োজন নেই।

About মোহাম্মদ মোহন

মোহাম্মদ মোহন, মোহন্স ওয়ার্ল্ড এনইউ এর প্রতিষ্ঠাতা, এখানে বিভিন্ন শিক্ষা বিষয়ক নোটিশ, ফলাফল, সময়সূচী, সাজেশন, আবেদন পদ্ধতিসহ বিভিন্ন বিষয়ে পোস্ট করার চেষ্টা করি। মোহাম্মদ মোহন সম্প্রতি নোয়াখালী সরকারি কলেজ, নোয়াখালী থেকে বি.এস.এস (অনার্স), এম.এস.এস (অর্থনীতি) সম্পন্ন করেছেন।

Check Also

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৯ সালের অনার্স ১ম বর্ষ পরীক্ষার সময়সূচী

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৯ সালের অনার্স ১ম বর্ষ পরীক্ষার সময়সূচী ও সংশোধিত কেন্দ্রতালিকা Honours 1st Year Exam Routine 2019

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ২০১৯ সালের অনার্স ১ম বর্ষ পরীক্ষার সময়সূচী ও সংশোধিত কেন্দ্রতালিকা প্রকাশ করা ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *