অনার্স-মাস্টার্স পরীক্ষায় ইনকোর্স বাদ দিয়ে ১০০ মার্কের পরীক্ষা হবে NU Incourse 2020

অনার্স-মাস্টার্স পরীক্ষায় ইনকোর্স বাদ দিয়ে ১০০ মার্কের পরীক্ষা হবে NU Incourse 2020। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত কলেজগুলােতে অনার্স-মাস্টার্স পরীক্ষায় উপস্থিতি ও ইনকোর্স পরীক্ষায় নির্ধারিত ২০ নম্বর না রাখার বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়েছে। এরফলে আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে কোর্সগুলােতে ৮০ নম্বরের পরিবর্তে ১০০ নম্বরের পরীক্ষা হবে।

বদলে যাচ্ছে অনার্স মাস্টার্স পরীক্ষার নম্বর বিভাজন। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত কলেজগুলোতে পরবর্তী বছর থেকে উপস্থিতি ও ইনকোর্স নম্বর বাতিল করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কাউন্সিল। আগে অনার্স ও মাস্টার্স পরীক্ষায় ইনকোর্স ২০ নম্বর নির্ধারিত ছিল। ফলে আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে অনার্স ও মাস্টার্স কোর্স পরীক্ষায় ৮০ নম্বরের পরিবর্তে ১০০ নম্বরের পরীক্ষা হবে।

০৮/০২/২০ তারিখ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের সিনেট হলে একাডেমিক কাউন্সিলের ৯১তম সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

পূর্ববর্তী সময়ে (২০১২-১৩) সেশন পর্যন্ত জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থা আমরা সবাই দেখেছি। ৪০ নম্বর পেয়ে পাস করাই কত কঠিন ছিল সে সময়।
ইনকোর্স ও ক্রাশ প্রোগ্রামের মাধ্যমে পূর্বের অবস্থা এখন নেই বললেই চলে। পরীক্ষার ফলাফলে প্রথম বিভাগের পরিমাণ আগের চেয়ে বেশি।

ইনকোর্স না থাকার ফলে যেসব সমস্য দেখা দিবেঃ

১। ১০০ নম্বরের পরীক্ষা হবে ৪ ঘন্টা এবং পাস নম্বর হবে ৪০% বর্তমানে ইনকোর্স আর রিটেন সহ ৪০% পেলেই পাস হয়ে যাচ্ছে। ১০০ নম্বরের পরীক্ষায় পাস করা কঠিন হবে।
২। উপস্থিতির উপর নাম্বার থাকার কারণে কম হলেও শিক্ষার্থীরা কলেজমুখী হয়েছে। ইনকোর্স না থাকার কারণে কলেজে যাওয়ার প্রয়োজন মনে করবেনা বেশিরভাগ শিক্ষার্থী।
৩। ইনকোর্স না থাকার ফলে প্রথম বিভাগ পাওয়া কঠিন হয়ে যাবে।
৪।৮০ নম্বরের পরীক্ষা ৪ ঘন্টায় হয়, ১০০ নম্বরের পরীক্ষাও ৪ ঘন্টায় হবে।
বিঃদ্রঃ ইনকোর্স পরীক্ষা বর্তমান চলমান সেশনগুলোতে থাকবে। আগামী ২০২০/২০২১ সেশন থেকে যারা নতুন ভর্তি হবে তাদের জন্য কার্যকর হবে।

‘বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক চিন্তা, সমাজ ভাবনা ও আদর্শ’ শীর্ষক গবেষণার বিষয়বস্তুর উপর এমফিল-পিএইচডি কোর্স চালুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়।

আজ শনিবার গাজীপুরে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে সিনেট হলে অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলের ৯১তম সভায় বঙ্গবন্ধুর উপর এমফিল-পিএইচডি ডিগ্রির কোর্স চালুর সিদ্ধান্ত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. হারুন-অর-রশিদ। অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলের ৩৩ জন সদস্য সভায় উপস্থিত ছিলেন।

সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী মুক্তিযুদ্ধ, বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ গবেষণা ইনস্টিটিউটের অধীনে পরিচালিত এমফিল লিডিং টু পিএইচডি রেগুলেশন ২০১৯ ও সিলেবাস অনুমােদন করা হয়। এছাড়া ইনস্টিটিউটের জন্য বিভিন্ন পর্যায়ে ২০ জন শিক্ষকের পদ সৃষ্টির অনুমোদন দেয়া হয়।

এছাড়া অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলের সভায় কলেজ পরিচালনা পর্ষদ সংক্রান্ত বিদ্যমান বিধিতে সংশােধন আনা হয়েছে। সংশােধনে গভর্নিং বডির নির্বাচন পরিচালনার জন্য ৩ সদস্যের নির্বাচন কমিশন গঠনের বিধান যুক্ত করা হয়েছে। সভায় ২ জনকে এমফিল ও ১ জনকে পিএইচডি ডিগ্রি প্রদানের বিষয়টিও অনুমোদন করা হয়।

অনার্স-মাস্টার্স পরীক্ষায় ইনকোর্স বাদ দিয়ে ১০০ মার্কের পরীক্ষা হবে NU Incourse 2020

অনার্স-মাস্টার্স পরীক্ষায় ইনকোর্স বাদ দিয়ে ১০০ মার্কের পরীক্ষা হবে NU Incourse 2020

অফিসিয়াল ওয়েবসাইটঃ http://www.nu.ac.bd

Leave a Comment